প্রতিদিন কতটুকু পানি পান করা উচিত?

শরীর সুস্থ রাখতে হলে পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পানের বিকল্প নেই। তবে ব্যস্ততা এবং নানা কারণে আমরা নিয়মমতো পানি পান করতে ভুলে যাই। পরিমাণমতো পানি পান না করলে শরীরের নানাবিধ সমস্যা দেখা দেয়। চলুন আজকের এই ব্লগে আমরা জেনে নিই, সুস্থ থাকতে এবং শরীরের পাণী শূণ্যতা পূরণ করে, সুস্থ জীবন-যাপন করতে প্রতিদিন কতটুকু পানী পান করা প্রয়োজন।

How much water should be drunk every day

কোন কোন সময় পানি পান করা উচিত

সকালে ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে পাণী পান করা শরীরের জন্য সবচেয়ে ভালো। 

দুপুরের খাবার কিংবা রাতের খাবারের অন্তত আধাঘণ্টা আগে পানি পান করা উচিত।

গোসলের আগে এক গ্লাস পানি পান করতে পারেন। এতে উচ্চ রক্তচাপ স্বাভাবিক থাকবে।

দুপুর ও রাতের খাবারের সময়ে পানি পান করতে ভুলবেন না। যখনই পিপাসা অনুভব করবেন তখনই পানি পান করবেন।

খাবারের অন্তত আধাঘণ্টা আগে পানি পান করতে হবে। এতে হজমশক্তি ভালো হবে।

আরো পড়ুন:

মাঙ্কিপক্স (Monkey pox) কি
চুইঝাল কি। চুইঝালের দাম-চুইঝাল রেসিপি

ওজন অনুযায়ী পানি পান

কতটুকু পানি পান করতে হবে তা আপনার ওজনের উপর নির্ভর করে।  যার ওজন যতবেশি তার পানির চাহিদা তত বেশি।

প্রথমে ওজনকে পাউন্ডে পরিবর্তন করুন যেমন- ১ কেজি সমান ২.২০ পাউন্ড, তারপর ওজনকে ২/৩ দিয়ে ভাগ করলে বোঝা যাবে আপনার শরীরের জন্য কতটা পানি জরুরি।

যদি আপনার ওজন ২০০ পাউন্ড হয় তাহলে ২০০ কে ২/৩ দিয়ে ভাগ করলে প্রায় ১৩৩ আউন্স পাওয়া যাবে। এর মানে হল আপনার জন্য দৈনিক ১৩৩ আউন্স পানি পান করা প্রয়োজন।

পানি পান করার সঠিক নিয়ম

অনেকই আছে যারা পানি পানের সময় একেবারে অনেক মাত্রায় পানি পান করে থাকেন এবং এমনটা করতে গিয়ে পানি প্রায় গিলে গিলে খান। এইভাবে পানি পান করলে শরীরের ভিতর হঠাৎ করে চাপ খুব বেড়ে যায়, ফলে নানাবিধ অঙ্গের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা থাকে। তাই সব সময় অল্প অল্প করে জল পান করতে হবে।

শরীরে জলের পরিমাণ কমতে থাকলে নানাবিধ লক্ষণের প্রকাশ ঘটে থাকে। যেমন ধরুন প্রস্রাব হলুদ হতে থাকে, সেই সঙ্গে ঠোঁট এবং গলা শুকিয়ে যায়। এই ধরনের লক্ষণ প্রকাশ পেলে সঙ্গে সঙ্গে পানি পান করাটা জরুরি। এই বিষয়ে যত সচেতনতা বাড়বে, তত রোগের প্রকোপ কমতে থাকবে। কারণ শরীরকে চাঙ্গা রাখতে পানি বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

শরীরের কথা ভেবে এই বিষয়টা সর্বক্ষণ মনে রাখতে হবে যে ভুলেও দাঁড়িয়ে পানি পান করা চলবে না। কারণ এমনটা করলে দেহের ভিতর জলের ভারসাম্য ঠিক থাকে না। ফলে জয়েন্টে পানি জমে গিয়ে আর্থ্রাইটিস রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। তাই যতই ব্যস্ততা থাকুক না কেন, বসে জল খেতে হবে।

ঘুম থেকে উঠেই পানি পান করলে শরীর থেকে ক্ষতিকর টক্সিক উপাদানেরা বেরিয়ে যায়। ফলে রোগভোগের আশঙ্কা একেবারে কমে যায়। এই কারণেই তো ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে কম করে ২ কাপ জল খাওয়ার পরামর্শ দেন চিকিৎসকেরা। গবেষণায় দেখা গেছে সকাল সকাল পানি পানের অভ্যাস করলে কিডনি এবং ইনটেস্টাইনের কর্মক্ষমতাও বৃদ্ধি পায়।

চিকিৎসকেদের মতে খাবার খাওয়ার কম করে ১-২ ঘন্টা পর পানি পান করা উচিত। এমনটা না করলে হজমে সহায়ক পাচক রসের কর্মক্ষমতা কমতে শুরু করে। ফলে হজম ঠিক মতো না হাওয়ার কারণে বদ-হজম এবং গ্যাস-অম্বলের মতো সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়।

আরো পড়ুন: আইফোন ১৪ এই বছরেই বাজারে আসছে

রাতে কতটুকু পানি খাওয়া উচিত 

বেশ কিছু স্টাডিতে দেখা গেছে রাতে ঘুমানোর আগে কম করে এক গ্লাস পানি পান করলে পেশি এবং জয়েন্টের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে, সেই সঙ্গে এনার্জি লেভেলও বাড়ে। শুধু তাই নয়, দেহের ভেতরে পানির ঘাটতি মেটার কারণে গুরুত্বপূর্ণ কিছু হরমোনের ক্ষরণও ঠিক মতো হতে শুরু করে। ফলে সার্বিকভাবে শরীর চাঙ্গা হয়ে উঠে।

একথার মধ্যে কোনও ভুল নেই যে রাত্রে পেট ভর্তি করে পানি খেয়ে শুলে সকাল পর্যন্ত ওজন বেশ অনেকটাই কমে। কারণ ক্যালরি বার্ন করতে পানির কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। আসলে ঠান্ডা পানি খাওয়া মাত্র শরীরের তাপমাত্র হঠাৎ করে কমে যায়। ফলে সেই সময় তাপমাত্রা বাড়াতে শরীরকে অতিরিক্ত কাজ করা শুরু করতে হয়। আর এমনটা হওয়ার কারণে স্বাভাবিকবাবেই বেশি মাত্রায় জ্বালানির প্রয়োজন পরে। ফলে ওজন কমতে সময় লাগে না। প্রসঙ্গত, রাতের শুতে যাওয়ার আগে এক গ্লাস পানি খেলে আরেকটি ঘটনা ঘটে। এই সময় মেটাবলিক রেট স্বাভাবিক মাত্রার থেকে অনেকটাই বেড়ে যায়। এই কারণেও ওজন কমার পথ প্রশস্ত হয়।

শীতকালে কতটুকু পানি খাওয়া উচিত

শীতের সময় ঠান্ডার ভয়ে পানি পান করা কমালে ডিহাইড্রেশনের ঝুঁকি বেড়ে যায়। তাই সকালে  ঘুম থেকে উঠে  ঠান্ডা পানি খেতে অসুবিধা হলে শীতের সকালে চায়ের আগে গরম পানি খেয়ে দিন শুরু করুন। 

পানিকে অনেকে ওষুধের সঙ্গেও তুলনা করেন, কেন না শরীরে জমে থাকা নানান টক্সিক প্রস্রাব ও ঘামের মাধ্যমে শরীরের বাইরে বেরিয়ে গিয়ে সুস্থ থাকতে সাহায্য করে। তাই শীতের দিনেও  ন্যূনতম ১.২১.৫ লিটার পানি পান করা দরকার। 

মানুষের দেহে পানির পরিমান কত

পানি খাদ্যের একটি উপাদান। মানবদেহের জন্য পানি অপরিহার্য। দেহের গঠন এবং অভ্যন্তরীণ কাজ পানি ছাড়া চলতে পারেনা। আমাদের দৈনিক ওজনের ৬০ - ৭৫% পানি। আমাদের রক্ত, মাংস, স্নায়ু, দাঁত, হাড় ইত্যাদি প্রতিটি অঙ্গের গঠনের জন্য পানির প্রয়োজন। একজন পূর্ণ বয়স্ক ব্যক্তির দৈনিক ২ - ৩ লিটার পানি পান করা উচিত।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url