অনলাইন মোবাইল লোন বাংলাদেশ (সহজ লোন) । বিকাশ থেকে লোন নেওয়ার উপায় ২০২২

অনলাইন মোবাইল লোন বাংলাদেশ, সহজ লোন, বিকাশ থেকে লোন নেওয়ার উপায়  ২০২২, Online Mobile Loan Bangladesh Easy Loan

অনলাইন মোবাইল লোন বাংলাদেশ (সহজ লোন) । বিকাশ থেকে লোন নেওয়ার উপায়  ২০২২: আমরা অত্যন্ত আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি যে সিটি ব্যাংক এবং বিকাশ লিমিটেড যৌথভাবে অনলাইন লোনের ব্যবস্থা করেছে। একজন যোগ্য বিকাশ গ্রাহক ১০,০০০ টাকা লোন নিতে পারবেন। পাইলট প্রকল্পের অধীনে বিনা জামানতে এই ঋণ সুবিধা পাবে নির্বাচিত কয়েক হাজার গ্রাহক।


বিকাশ থেকে লোন নেওয়ার উপায়

কোন প্রকারের জামানত ছাড়াই আপনি খুব সহজেই বিকাশ অ্যাপের মাধ্যমে ১০,০০০ টাকা ঋণ সুবিধা ভোগ করতে পারবেন। যা পরবর্তীতে তিন মাসে তিনটি কিস্তিতে পরিশোধ করতে হবে। বিকাশের তথ্যমতে, সিটি ব্যাংক এবং বিকাশ যৌথ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে দেশের প্রান্তিক লোককে ঋণ সুবিধা দেওয়ার জন্য। তাদের প্রকাশিত সংবাদে জানা যায়, পাইলট প্রকল্পের অধীনে কিছু সংখ্যক গ্রাহক প্রথমেই সুবিধা পাবে।

বিকাশ লোন নেওয়ার সহজ উপায়

আমরা ইতিমধ্যে বলেছি বিকাশ লোন নেয়া অত্যন্ত সহজ। আপনাকে কোন ঝামেলা ছাড়াই বিকাশ ঋণ দিবে। তবে অবশ্যই আপনাকে নির্বাচিত কাস্টমার হতে হবে। কারণ এখন পর্যন্ত এটা শুধুমাত্র কিছুসংখ্যক গ্রাহকদের জন্য সীমাবদ্ধ।

সহজ কিস্তিতে লোন

বাংলাদেশ ব্যাংকের ঋণের নিয়ম অনুসারে সকল প্রকার ঋণে শতকরা ৯ শতাংশ সুদ বলবৎ থাকবে। এক্ষেত্রে বিকাশ ব্যাতিক্রম নয়। সুতরাং তিন মাসের হিসেবে যে টাকা হবে তা আপনাকে সুদ-আসলে পরিশোধ করতে হবে।


কিভাবে বিকাশের লোন পরিশোধ করতে

আপনি যদি বিকাশ থেকে লোন গ্রহণ করে থাকেন তাহলে সকল নিয়ম কানুন মেনে আপনাকে তা নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে। আপনি যদি কোনরকম অবৈধ পন্থা অবলম্বন করেন তাহলে আপনার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার ক্ষমতা বিকাশ কর্তৃপক্ষ রাখে।

টাকা লোন নেওয়ার উপায়

আপনাকে বিকাশের অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে। আর যদি ইতিমধ্যেই বিকাশে অ্যাপ ব্যবহার করে থাকেন তাহলে এটা আপডেট করে নিতে হবে। বিকাশ অ্যাপ ডাউনলোড এর জন্য গুগল প্লে স্টোর ভিজিট করুন। আপনারা অনেকে জানতে চেয়েছেন আপনি বিকাশের লোন নেওয়ার যোগ্য কিনা। এটা যাচাইয়ের কোন পদ্ধতি নাই। শুধুমাত্র আপনিই জানতে পারবেন আপনি লোন পাবেন কিনা।

অনলাইন মোবাইল লোন বাংলাদেশ, সহজ লোন, বিকাশ থেকে লোন নেওয়ার উপায়  ২০২২, Online Mobile Loan Bangladesh Easy Loan

বিকাশ দিয়ে ১০ হাজার টাকা ঋণ পাওয়ার নিয়ম

বিকাশ থেকে দশ হাজার টাকা লোন কারা নিতে পারবে?আপনার জেনে রাখা উচিত বিকাশ থেকে দশ হাজার টাকা ঋণ নেওয়ার এই বিষয়টা কোন মানুষ দেখবে না। এটা বিকাশের যে এ আই বা আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স রয়েছে সে ঠিক করবে।এ আই কিভাবে ঠিক করবে আপনার মনে প্রশ্ন এসেছে তাই না? এ আই আপনার রিসেন্ট অ্যাক্টিভিটি দেখে এটা ঠিক করবে। অর্থাৎ আপনি বিগত দিনে কতো টাকা ক্যাশ আউট করেছেন কতো টাকা মোবাইল রিচার্জ করেছেন বা সেন্ড মানি করেছেন এসব বিষয় দেখে ঠিক করবে আপনি লোনের জন্য উপযোগী না অনুপযোগী।

সিটি ব্যাংক বিকাশ ঋণ আবেদন অনলাইন

আপনি কিভাবে চেক করবেন আপনি লোনের জন্য উপযোগী কিনা? এটা চেক করার জন্য আপনি আপনার বিকাশ অ্যাপস টা ওপেন করে নিবেন। ওপেন করার পর সেখানে অনেকগুলো অপশন দেখতে পারবেন সেখান থেকে আরও তে ক্লিক করলে আপনি লোন নামক একটা অপশন দেখতে পাবেন সেখান থেকে আপনি চাইলে লোনের জন্য অ্যাপ্লাই করতে পারেন।আর যদি আপনি বিকাশ এপস এর হোমপেজে এবং আরো তে ক্লিক করার পর লোন নামক অপশন না দেখতে পান তাহলে আপনি ধরে নিতে পারেন আপনি বিকাশ এর লোনের জন্য অনুপোযোগী। যদি আপনি অনুপযোগী হয়ে থাকেন তাহলে আপনি কিছু কাজ করতে পারেন। যেমন আপনি বেশি বেশি করে মোবাইল রিচার্জ করতে পারেন কিংবা বেশি বেশি করে ক্যাশ আউট বা সেন্ড মানি অর্থাৎ বিকাশে যে সকল  ব্যাংকিং করার অপশন রয়েছে আপনি চাইলে সেগুলো ঘন ঘন করতে পারেন। তাহলে আপনিও লোন অপশন টা পেতে পারেন নিশ্চিত নয়। তবে মনে রাখবেন এটা বিকাশের অফিসের কোনো তথ্য না এটা আমার ব্যক্তিগত মতামত।

ই লোন

এবার আপনি যদি বিকাশের লোন নেওয়ার অপশন পেয়ে যান তাহলে আপনি কিভাবে লোন নিবেন বা কিভাবে লোনের টাকাটা হাতে পাবেন। এখানে লোন নেওয়ার জন্য কোন প্রকার কাগজপত্র প্রয়োজন হবেনা। আপনি সেই লোন অপশন এর উপরে ক্লিক করে আপনার টাকার পরিমাণ লিখলে সিটি ব্যাংক থেকে আপনার বিকাশ একাউন্টে আপনি যে পরিমাণ টাকা লিখেছেন সেই টাকা চলে আসবে।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url